ডমিঙ্গোকে নিয়ে মাশরাফির খোলামেলা আলাপ

Staff Staff

Reporter

প্রকাশিত: ১২:৪৭ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৭, ২০২২

বাংলাদেশ দল এখন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে রয়েছে। আগামীকাল শুক্রবার তাদের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে টাইগাররা। এবার সেখানে সাফল্য প্রত্যাশা করা হচ্ছে। কারণ, বাংলাদেশের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো একজন প্রোটিয়া। এছাড়া কোচিং স্টাফের বেশিরভাগ সদস্যই দক্ষিণ আফ্রিকান।

কিন্তু রাসেল ডমিঙ্গোকে নিয়ে সন্তুষ্ট নয় বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। এমনটাই জানিয়েছেন সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। বৃহস্পতিবার (১৭ মার্চ) মিরপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন মাশরাফি। এ সময় প্রোটিয়া এই কোচকে নিয়ে বেশ খোলামেলা আলোচনা করেছেন তিনি।

ডমিঙ্গোর অধীনে মাত্র তিনটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন মাশরাফি। এর পরই নেতৃত্ব ছেড়ে দেন এবং জাতীয় দলের দরজা তার জন্য একরকম বন্ধ হয়ে যায়। আর ফিরতে পারবেন বলেও মনে হয় না। এর বাইরেও বাংলাদেশ দলে রাসেল ডমিঙ্গোর কাজ নিয়ে বিভিন্ন সময় কথা বলেছেন নড়াইল এক্সপ্রেস। তার ভাষ্য, কোচ হিসেবে ডমিঙ্গোর সাফল্যের চেয়েও ব্যর্থতার পাল্লা বেশি। ড্রেসিংরুমের পরিবেশও খুব একটা ভালো নয়।

মাশরাফি বলেন, ‘দল সফল হলে অবশ্যই সেটা তার (ডমিঙ্গো) কৃতিত্ব। আমি মাত্র তিনটা ম্যাচে ওর সঙ্গে কাজ করেছি। তাই কথা বলার সুযোগ কম। তবে যত ম্যাচ আমরা হেরেছি, সেই দায়টাও তাকে নিতে হবে। আমরা অনেক ম্যাচ এখানে (মিরপুরে) হেরেছি, যেগুলো হারার কথা ছিল না। নিউজিল্যান্ডে যে টেস্ট জিতেছি সেটা আমাদের জেতার কথা ছিল না, এরকমও আছে।’

ডমিঙ্গোর অধীনে ঘরের মাঠে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে পরাজয়, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভরাডুবি অন্যতম। মাশরাফি বলেন, ‘আমরা ঘরের মাঠে যেসব ম্যাচ হেরেছি; শেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, আফগানিস্তানের সঙ্গে টেস্ট ম্যাচ। অনেক কিছুই আছে। এখন পর্যন্ত ওর পারফরম্যান্স খারাপের দিকেই বেশি। দেখা যাক, দক্ষিণ আফ্রিকায় যদি এক্সট্রা অর্ডিনারি কিছু করে আসে। কারণ, ওই দেশের সংস্কৃতি ও পরিবেশ সম্পর্কে সে ভালো জানে, উইকেট নিয়েও ধারণা আছে। আশা করছি ও একটা বড় ভূমিকা পালন করবে এবং সেটা হলে খুবই ভালো হবে।’

বাংলাদেশ দলে এখনো নানা পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাতে দেখা যায় ডমিঙ্গোকে। দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই তিনি এটা করে আসছেন। এই ব্যাপারটা নিয়ে ক্রিকেটার মাঝেও অসন্তোষ রয়েছে। এ বিষয়ে নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত এই ক্রিকেটার বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, ওর (ডমিঙ্গো) ব্যর্থতার পাল্লা বেশি। বাংলাদেশ দল এখন ওই সময়ে নেই যে, পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবে, এখন সমর্থকরা সফলতা চায়। আপনারাও সফলতা চান, ক্রিকেট বোর্ডও সফলতা চায়। সেখানে নতুন কোচ এসে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবে, সেই জায়গা নেই এখন। এখন পারফরম্যান্স দেওয়ার সময়। ওয়ানডে ক্রিকেটে কিন্তু সব মিলিয়ে ৬-৭ বছর ধরে ভালো পারফর্ম করে আসছে, অন্যান্য ফরম্যাটেও একই অবস্থা।’

তিনি আরও বলেন, ‘খেলোয়াড়দের মাঝে তাকে নিয়ে অনেক অভিযোগ আছে। প্রথম যে জিনিসটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেটা হলো, ড্রেসিংরুম ভালো থাকা। সেটা যদি থেকে থাকে দ্যাটস ফাইন, আমার কাছে মনে হয়নি সেটা (ড্রেসিংরুম হ্যাপি) আছে। এজন্য খোলা মনে বলেছি, রাসেল ডমিঙ্গোর বাংলাদেশ ক্রিকেটে সাফল্যের পাল্লা বেশি ভারী নয়। বিসিবি যদি তাকে নিয়ে সন্তুষ্ট থাকে তাহলে খুব ভালো, এটা বিসিবির সিদ্ধান্ত।’